এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

0
305

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে সারাদেশে সোমবার থেকে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।

এবার মোট ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার পাশাপাশি এবারই প্রথম লটারির মাধ্যমে নির্ধারণ হয় প্রশ্নপত্রের সেট। এছাড়া ত্রিশ মিনিট আগে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশে বাধ্যবাধকতা আনা হয়েছে। ইন্টারনেটের মাধ্যমেও যাতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা না ঘটে সেদিকেও নজরদারি থাকবে বিটিআরসির।

এইচএসসি পরীক্ষার রুটিন অনুযায়ী, পরীক্ষা সকাল ১০টায় শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। আগামী ১৩ মে পর্যন্ত তত্ত্বীয় পরীক্ষা হবে। ১৪ থেকে ২৩ মে’র মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এইচএসসি ও সমমানে গতবারের তুলনায় এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে। ২০১৭ সালে পরীক্ষার্থী ছিল ১১ লাখ ৮৩ হাজার ৬৮৬ জন। এ বছর সেই সংখ্যা ১ লাখ ২৭ হাজার ৭৭১ জন বেড়েছে। গত বছরের তুলনায় মোট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে ৭৯টি। আর পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যা বেড়েছে ৪৪টি।

গত ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষায় ১২টি বিষয়ের বহুনির্বাচনী প্রশ্নপত্র (এমসিকিউ) ফাঁসের কারণে দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এসব ঘটনায় সারাদেশে ১৫৩ জনকে গ্রেফতার করা হয় এবং ৫২টি মামলা হয়। মামলাগুলো তদন্তাধীন। মাধ্যমিকের অভিজ্ঞতার আলোকে প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ডগুলো এবার সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থাসহ দেশের ১৭টি সংস্থা গত কয়েকদিন ধরেই নজরদারি করছে।

বিভিন্ন অনলাইন সামাজিক মাধ্যম, পরীক্ষা কেন্দ্র, শিক্ষকসহ প্রশ্নপত্র সংরক্ষণের ট্রেজারি ও থানাগুলোয়ও কড়া নজরদারি চলছে। পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ গজের মধ্যে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পরীক্ষা কেন্দ্রে কেন্দ্র সচিব ছাড়া কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। ২৯ মার্চ থেকে সারাদেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অর্থ লেনদেনেও নজরদারি বাড়িয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here