রোমান্টিক থ্রেড

0
301

ডি এম কামরুজ্জামান স্বাধীন।

সায়ান রুমে ঢুকেই ফ্লোরে একটা নীল খাম পরে থাকতে দেখে। সন্দেহ আর ভাবনা থেকে নিচু হয়ে তুলে নেয়। খামটা হাতে নিয়ে ভালো করে দেখে। না, খামে কোন প্রাপক বা প্রেরকের নাম নেই। মনে একটু curiosity জাগে। খাম টা খুলতে খুলতে সোজা খাটে শুয়ে পরে।
এই যে শুনেন,
চিঠি টা সম্পূর্ণ না পড়ে ভাবনায় ডুব দিবেন না। ইদানিং দেখছি বেশ এলোমেলো জীবন যাপন করছেন। সকালে বের হবার আর রাতে ফেরার সময় ঠিক রুটিন মেনে চলছেন না। দূর্নীতি করে কী চাকরিটা হারিয়েছেন নাকি???
যাক চাকরি হারালে আমার কি? নিজেই আবার একটা যোগার করে নিবেন। তবে চাকরি না থাকলে পাত্রী পক্ষ কন্যা দিতে গড়িমসি করে। সেই দিকটা খেয়াল রাখবেন।
আসলে আপনি কী করেন তাই তো জানি না। একা একটা ফ্লাট নিয়ে আছেন। কোন কাজের লোক টোকও নেই। বন্ধের দিন গুলোতে দেখি কাপড় দিয়ে বারান্দা ভরপুর। গুড, নিজের কাজ নিজের করা ভালো। এই বেটা বিয়ের পরও যেন অভ্যাস অব্যাহত থাকে, তানাহলে হাত ভেঙে খাটে ফেলে রাখবো।
ঐ ধামড়া প্রতিদিন শেভ করতে কি সমস্যা??? খোঁচা খোঁচা দাড়িতেতো বন মানুষের মত লাগে। ছ্যাকা খাওয়া ছোকরা টাইপ ছেচড়া মনে হয়। ক্লিন শেভে থাকবেন। বুঝলেন হনুমান।
আপনি কি করেন সেটা আপনার ব্যাপার, তবে বিয়ের ভাবনাটা একটু মগজে ঢুকায় রাইখেন। আর শুনেন টাকা না থাকলে বৌ এর ভালোবাসার নদীতে পদ্মার চর পরবে, আর সময় না দিলে ফেসবুকে পরকীয়া করে শেষে নিজক্রিয়াতে লিপ্ত হবে, তখন আম ছালা সব যাবে, আমের আটি পরে থাকবে। বসে বসে চুষবেন, আর কাঁদে, বুঝলেন মদন?
কি ভাবছেন মেয়েটা কে? পাগলী নাকি? হ্যাঁ আমি কিঞ্চিত পাগলী, সেটা আপনার জন্য!! আপনার বেপরোয়া জীবন যাপনের জন্য। তিন বেলা হোটেলের পঁচা খাবার খেলে যে দ্রুত পটল তুলবেন, তখন আমার কি হবে, ভাবছেন কখনো??
তাড়াতাড়ি বিয়ের প্রস্তুতি নেন, আমার জন্য কিন্তু পাত্রের মা জননীরা প্রতিদিন হানা দিচ্ছে। আমি আর বেশী দিন থামিয়ে রাখতে পারবো না। শুনেন রাতে আমারও একা একা লাগে, কারো আদর পেতে ইচ্ছে করে, কারো বুকে মাথা রেখে ঘুমাতে ইচ্ছে করে।
ঐ বেটা অন্য কারোর সাথে লাইন আছে নাকি?? থাকলে ইস্তফা দিয়ে দেন, আমি যেহেতু পছন্দ করছি, অন্য কেউ পথ রুখে দাঁড়ালে ঠ্যাং ভেঙে দিবো। আর আপনাকে দিগম্বর করে এলাকা ছাড়া করবো।
কি ভাবছেন? আমি খোঁজ খবর নিচ্ছি। প্রেম টেম নাই, তবে একটা মেয়ের পিছে টাংকি পারেন। আজ থেকে বাদ দিবেন। টাংকি মারা পোলা আমার পছন্দ না। আর শুনেন আর একদিন যদি লাল ঠোঁটে বিড়ি দেখি ঠোঁটে আগুন ধরায় দিবো।
কি ভাবতাছেন? মাস্তান!! স্বৈরাচার!! হ্যাঁ আমি তাই। ক্ষমতার জন্য যেমন রাজনৈতিক দল গুলো রক্ত ঝরাতে দ্বিতীয়বার ভাবে না, আমিও আপনাকে পেতে রক্ত ঝরাতে দ্বিতীয় বার ভাববো না। দিনে দুপুরে রাস্তায় শ্লোগান ছাড়া লাশ ফেলে দেবো।
আর শুনেন, ভয় পান কেন। ঠিক মতো আদর যত্ন আর ভালোবাসলে, আমার মতো বৌ পৃথিবীতে দ্বিতীয়টা হবে না।  শুনেন বিয়ের পর এই ফ্ল্যাটেই থাকবো, দক্ষিণের বারান্দাটা আমার খুব পছন্দ। আর একটা কথা সন্ধ্যার পর বাইরে থাকা যাবে না। মেয়েদের দিকে লুইচ্চাদের মত ছুক ছুক করা যাবে না। সোজা ভালো মানুষ হতে হবে। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ জামাতে পড়তে হবে। এক ওয়াক্ত মিস হলে রগ কেটে বিছানায় ফেলে রাখবো।
আর শুনুন আমার চার পাঁচটা পোলাপান চাই। ওদের খাওয়া দাওয়ার চিন্তা আমার, বাবার বাড়ি থেকে যা পাবো সেটা দিয়ে আমাদের জীবন স্বাচ্ছন্দ্যে চলে যাবে। আপনি শুধু দায়িত্বটা পালন করলেই হবে।
শেষ কথা শুনুন, আপনার বাবা মা আমার বাবা মার মতো আমার কাছে থাকবে। ওনাদের যত্নাদি আমার দায়িত্ব। ওনাদের নিয়ে আপনি ভাববেন না। আপনার বাবার শরীরটা ভালো যাচ্ছে না, ওনাকে এনে ডাক্তার দেখাবেন। কাল আর একটা খাম পাবেন, ওখানে বিশ হাজার টাকা থাকবে, আপনার জন্য না, আপনার বাবার চিকিৎসার জন্য।
আজ আর আবেগ থামাতে পারছি না। তাই রেখে দিচ্ছি। যাবার আগে বলি, আমাকে চিনতে পারছেন না, তাই না??  যার বাসায় ভাড়া থাকেন তাদের সবার খোঁজ খবর রাখতে হয়। ছেলে মেয়ে কয়টা জানতে হয়।
ভালো থাকবেন। আমার পিছে আর টাংকি মারতে হবে না। আমি আপনারি। এখন থেকে ভালবাসবেন, শুধু ভালবাসবেন।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here