রোহিঙ্গাদের যাচাইয়ে সময় লাগছে: মিয়ানমারের মন্ত্রী

0
322

ইনফোবাংলা২৪ ডেস্ক:

প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরও রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে গড়িমসি করা হচ্ছে- এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে মিয়ানমারের সমাজকল্যাণ এবং ত্রাণ ও পুনর্বাসনমন্ত্রী উইন মিয়াত আয়ে বলেছেন, শরণার্থী ফরমটি চুক্তির আলোকে পূরণ হচ্ছে না। ফলে আমাদের যাচাইয়ে সময় লাগছে। শরণার্থীরা চুক্তি অনুযায়ী ফরমটি পূরণ করলে প্রক্রিয়াটি আরও দ্রুততর হতে পারে।

শুক্রবার রেডিও ফ্রি এশিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে একথা বলেন তিনি। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের পক্ষে নেতৃত্বে দিচ্ছেন উইন আয়ে। আগামী ১১ এপ্রিল ঢাকা আসছেন তিনি। এ সময় আয়ে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাবেন বলে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ওই সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, আমাদের যেসব নাগরিক পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন, তাদের ফেরত আনা আমাদের দায়িত্ব। যাচাইয়ের জন্য বাংলাদেশকে একটি তালিকা পাঠিয়ে এখনও কোনো সাড়া পাইনি। যদি প্রক্রিয়াটি চুক্তি অনুসরণে চলে ও শরণার্থী প্রত্যাবাসনে ফরমটি চুক্তির আলোকে পূরণ হয়, তবে এটা দেরি হওয়ার কথা নয়।

আসন্ন ঢাকা সফরের বিষয়ে উইন আয়ে বলেন, শরণার্থীদের সমস্যার কারণে দুটি দেশই ভুগছে। তাই দুই পক্ষই শরণার্থী প্রত্যাবাসনে রাজি। এখন প্রক্রিয়াটি এগিয়ে নেওয়া ও সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়ে সফরে আলোচনা হবে।

 

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনীর সহিংস অভিযানে গণহত্যা-গণধর্ষণ-বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ শুরুর পর থেকে বাংলাদেশ সীমান্তে রোহিঙ্গাদের ঢল নামে। এরপর কয়েক মাসে ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়।

 

আন্তর্জাতিক সমালোচনার মুখে এক পর্যায়ে মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে রাজি হয়। এ বিষয়ে চার মাস আগে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে দেশটির একটি সম্মতিপত্র সই হয়। এর ভিত্তিতে গত ১৯ ডিসেম্বর যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করে দুই প্রতিবেশী দেশ। গ্রুপের বৈঠকে রোহিঙ্গাদের পরিচয় যাচাইয়ের জন্য একটি ফরমও চূড়ান্ত করা হয়।

 

এরপর বাংলাদেশের পক্ষ থেকে দেওয়া ৮ হাজার জনের তালিকা যাচাই করে মাত্র ৫০০ জনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার কথা জানায় মিয়ানমার। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে এমন গড়িমসি প্রসঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন। এতে মিয়ানমারের সঙ্গে চুক্তি বাস্তবায়নে জাতিসংঘের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

 

ওইদিনই রেডিও ফ্রি এশিয়াকে সাক্ষাৎকার দেন মিয়ানমারের মন্ত্রী উইন আয়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here